খৃষ্টধর্ম না পৌলবাদ? Khristodhormo na Poulbad?]

খৃষ্টধর্ম না পৌলবাদ? Khristodhormo na Poulbad?]

পৃথিবীতে অনেক ধর্মই প্রচলিত ছিল। সে সকল ধর্মকে দু’ভাগে বিভক্ত করা যায়। এক প্রকার হলো, খোদাপ্রদত্ত ঐশী ধর্ম। আরেক প্রকার মানব-রচিত ভ্রান্ত ধর্ম। ইসলাম ব্যতীত সকল ধর্মই কালের বিবর্তনে চরম বিকৃতির শিকার হয়েছে। তাছাড়া স্বয়ং আল্লাহ পাকও ইসলামধর্ম তথা শরীয়তে মুহাম্মাদী অবতীর্ণ করার মাধ্যমে পূর্বের সকল ঐশী ধর্মকে রহিত করে দিয়েছেন।

ঠিক একই অবস্থা হয়েছে পূর্বের সকল ধর্মগ্রন্থেরও। সে যুগের সুবিধাবাদী দুষ্ট লোকেরা ঐশী ও মানব-রচিত সকলপ্রকার ধর্মগ্রন্থের চরম বিকৃতি সাধন করেছে। এ সকল বিকৃত ধর্মগ্রন্থকে ঐশীগ্রন্থ বলার কোনোই অবকাশ নেই। তা ছাড়া কুরআনুল কারীম অবতীর্ণ হওয়ামাত্রই আল্লাহ পাক পূর্বের সকল ধর্মগ্রন্থকেও রহিত করে দিয়েছেন।

পূর্বের প্রচলিত ধর্মসমূহ ও ঐশীগ্রন্থসমূহের মধ্যে হয়তো সর্বাধিক বিৃকতির শিকার হয়েছে খৃষ্টধর্ম ও তাদের ধর্মীয় কিতাব ‘বাইবেল’। মজার ব্যাপার হলো, এই চরম বিকৃত ধর্মের ও বিকৃত কিতাবের অন্ধ অনুসারীরাই নিজেদের পৃথিবীর সংখ্যাগুরু বলে দাবি করে এবং অন্যদের দাবড়িয়ে বেড়ায়। খৃষ্টধর্ম ও তাদের ধর্মগ্রন্থ বাইবেলের বিকৃতির বিষয়টি বিস্তারিতভাবে এ কিতাবে আলোচনা করা হয়েছে। অতএব খৃষ্টধর্মের অসারতা, বিকৃতির আসল হাকীকত সম্পর্কে অবগতিলাভের জন্য এ কিতাবটি পাঠ করা উচিত।

Write a review

Please login or register to review
  • Tk. 60.00

Tags: Khristodhormo na Poulbad