মাওয়ায়েযে হাসান বসরী রহ. (Mawayeje Hasan Basri Rah.)

মাওয়ায়েযে হাসান বসরী রহ. (Mawayeje Hasan Basri Rah.)

হযরত হাসান বসরী (রহ.) এক মহান মনীষী। মহান ওলী। শরীয়ত ও সুন্নাহর অতলান্ত জ্ঞানের অধিকারী। আলেম, ফকীহ, মুহাদ্দিস, মুফাসসির ও সকল শ্রেণির গুণীজনের মহান মুরুব্বী।

তিনি একই সঙ্গে মহান মুফাসসির, মুহাদ্দিস, ফকীহ ও ভাষা সাহিত্যিক হলেও পরবর্তীজীবনে আধ্যাত্নিকতার ক্ষেত্রেই বিশেষ খ্যাতি লাভ করেন ।তাঁর আধ্যাত্নিক বাণী ও অবস্হাবলি অধিক প্রসিদ্ধি লাভ করে।

তাঁর জীবন ও আদর্শ মানুষকে বাস্তবদর্শী করে। কর্মমূখী করে । শরীয়ত-অনুসারী করে। আল্লাহ ও আখেরাত প্রেমী করে ।

তাঁর কিছু নসীহতমালা .......


১. তিনি বলতেন, হে আদম সন্তান! তুমি কয়েকটি দিনের সমষ্টি মাত্র। তা থেকে যখন এক দিন চলে যায়, তোমার জীবনের একটি অংশ নিঃশেষ হয়ে যায়।

২. হে আদম সন্তান! গোনাহ ছেড়ে দেয়া তোমার জন্য অনেক সহজ তাওবার চেয়ে।

৩. আল্লাহ তাআলা ওই ব্যক্তির উপর রহম করুন, যে হালাল রুজি উপার্জন করল। মধ্যম পন্থায় তা খরচ করল আর অতিরিক্ত অংশ অভাবের দিনের অর্থাৎ কেয়ামতের দিবসের জন্য পাঠিয়ে দিল। সুতরাং তোমরা অতিরিক্ত সম্পদ সেসব খাতে খরচ কর যেখানে আল্লাহ তাআলা খরচ করতে বলেছেন। সেখানে ব্যয় কর, যেখানে আল্লাহ তাআলা ব্যয় করতে আদেশ করেছেন।’

হাদীসে বর্ণিত হয়েছে


اَلدِّيْنُ النَّصِيْحَةُ- দ্বীন হলো নাসীহাহ ও কল্যাণকামিতা

আর তাই হাসান বসরী রহ. এর বিভিন্ন বিষয়ের উপর ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অমূল্য নসীহাতমালা নিয়ে সাজানো হয়েছে ‘মাওয়ায়েযে ইমাম হাসান বসরী রহ.’ নামক এই কিতাবটি। কিতাবটিতে জীবনের সার্বিক বিষয় তথা ঈমান, আমল, আত্মশুদ্ধি তওবা, জীবন গড়া ও জীবন চলা ইত্যাদি বিষয়ের দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা রয়েছে। এ আলোচনাগুলো যেমন অলস অকর্মণ্য লোকদেরকে পরিশ্রমের প্রতি উদ্বুদ্ধ করে, তেমনি যারা গুনাহে ডুবে আছে তাদেরকে ডাকে তাওবার দিকে। আর যারা শুধু দুনিয়া উপার্জনে ব্যস্ত, তাদেরকে আখেরাতের জন্য যে পরিমাণ আমল করা উচিত সে দিকে আহ্বান করে। সর্বোপরি আমাদেরকে জীবনের সর্বক্ষেত্রে ভারসাম্যমান অবস্থানে থাকতে শিক্ষা দেয়|

Write a review

Please login or register to review
  • Tk. 270.00

Tags: Tasauf, Sunnat, Mawaej